অবিশ্বাস্য দামে ডিসপ্লের নীচে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সার দিয়ে Xiaomi কে টেক্কা দিতে পারবে Oppo K1? পড়ুন রিভিউ

ফেসবুকে শেয়ার করুন টুইট শেয়ার রেডিট কমেন্ট
অবিশ্বাস্য দামে ডিসপ্লের নীচে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সার দিয়ে Xiaomi কে টেক্কা দিতে পারবে Oppo K1? পড়ুন রিভিউ

মাত্র 16,990 টাকায় Oppo K1 ফোনে ডিসপ্লের নীচে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর পাওয়া যাবে

হাইলাইট
  • Oppo K1 ফোনের ডিসপ্লের নিচে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর থাকছে
  • ফোনের ভিতরে থাকবে একটি Snapdragon 660 চিপসেট
  • সাথে থাকছে একটি 25 মেগাপিক্সেলে সেলফি ক্যামেরা

2019 সালে পাতলা বেজেল,  ভালো ক্যামেরা সহ একের পর এক ফ্ল্যাগশিপ বাজারে আসবে। এছাড়াও ফোন থেকে বাদ যাবে সব ধরনের পোর্ট ও বাটন।  নতুন বছরে যখন ফ্ল্যাগশিপ এ একাধিক ভবিষ্যতের প্রযুক্তি যোগ হতে শুরু করছে তখন গতবছর ফ্ল্যাগশিপ এর ফিচার মিডরেঞ্জ ডিভাইসে পৌঁছাতে শুরু করলো।

এই তালিকায় প্রথম নাম Oppo K1। এটি কোম্পানির K সিরিজের প্রথম স্মার্টফোন। এই ফোনের ডিসপ্লের নিচে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর থাকছে। এই প্রথম এত কম দামের কোন স্মার্টফোনের ডিসপ্লের নিচে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর দেখা গেল।  এর সাথেই থাকছে একটি 25 মেগাপিক্সেলে সেলফি ক্যামেরা। কুড়ি হাজার টাকার কম দামে ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর সহ Oppo K1 নিজের দামের প্রতি কতটা সুবিচার করলো? জানার জন্যই এই ফোন রিভিউ করলাম আমরা।

 

আরও পড়ুন: সস্তা হল Honor 8C, কোথায় পাওয়া যাচ্ছে এই স্মার্টফোন?

 

ডিজাইন ও বিল্ড

 অক্টোবর মাসে চিনে লঞ্চ হয়েছিল Oppo K1। Oppo F9 Pro আর Oppo A7 ফোন থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে ডিজাইন করা হয়েছে Oppo K1।

ফোনের পিছনে থাকছে গ্রেডিয়েন্ট ফিনিশ। আলোর বিপরীতে দারুন  থ্রিডি এফেক্ট দেয় এই স্মার্টফোন। শক্তপোক্ত বিল্ড কোয়ালিটির Oppo K1 ফোনের বাটন গুলিতে সহজেই আঙুল পৌঁছে যায়। সিম কার্ড ট্রে তে একসাথে দুটি সিম কার্ড ও একটি মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহার করা যাবে।  ফোনের নিচে থাকছে স্পিকার গ্রিল, মাইক্রো ইউএসবি পোর্ট আর 3.5 মিলিমিটার হেডফোন সকেট।

 

আরও পড়ুন: এটাই নতুন Samsung Galaxy S10e?

Oppo K1 back 1 ndtv OppoThe Oppo K1 ফোনের পিছনে গ্রেডিয়েন্ট ফিনিশ থাকছে

 

Oppo K1 ফোনে রয়েছে একটি 6.41 ইঞ্চি FHD+ ডিসপ্লে।  ডিসপ্লের উপরে থাকছে Gorilla Glass 5 সুরক্ষা। ডিসপ্লের নিচের ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর ব্যবহার করার জন্য Oppo K1 ফোনে থাকছে একটি AMOLED প্যানেল।  এই দামে খুব কম ফোনে AMOLED ডিসপ্লে দেখা যায়। ডিসপ্লের উপরে থাকছে একটি ওয়াটার ড্রপ স্টাইল নচ। ফোনের সাথে একটি স্ক্রিন গার্ড লাগানো থাকবে। এছাড়াও বাক্সের সাথে থাকবে একটি 10W চার্জার।

 

আরও পড়ুন: ভারতে Redmi Note 7 লঞ্চ: পাঁচটি আকর্ষনীয় তথ্য

Oppo K1 in display ndtv Oppo K1 অবিশ্বাস্য দামে Oppo K1 ফোনে ডিসপ্লের নীচে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর থাকছে

 

স্পেসিফিকেশন ও সফটওয়্যার

ডুয়াল সিম Oppo K1 ফোনে Android 8.1 Oreo  অপারেটিং সিস্টেম এর উপরেই চলবে কোম্পানির নিজস্ব ColorOS 5.2 স্কিন। Oppo K1 এ থাকছে একটি 6.4 ইঞ্চি FHD+  ডিসপ্লে। ফোনের ভিতরে থাকবে একটি Snapdragon 660 চিপসেট, 4GB/6GB RAM আর 64GB স্টোরেজ।

কানেক্টিভিটির জন্য এই ফোনে  4G VoLTE, Wi-Fi i 802.11 a/b/g/n/ac, Bluetooth 5.0, GPS/ A-GPS আর GLONASS ব্যবহার করেছে Oppo। থাকছে একটি 3,600mAh ব্যাটারি।

এই ফোনে Android 8.1 Oreo অপারেটিং সিস্টেমের উপর চলবে কোম্পানির নিজস্ব ColorOS 5.2 স্কিন।

 

আরও পড়ুন: Samsung Galaxy M10 বনাম Galaxy M20: দাম ও স্পেসিফিকেশান

Oppo K1 apps ndtv oppo K1oOppo K1 ফোনে Android 8.1 Oreo  অপারেটিং সিস্টেম এর উপরেই চলবে কোম্পানির নিজস্ব ColorOS 5.2 স্কিন

 

ক্যামেরা, পারফর্মেন্স ও ব্যাটারি লাইফ

রোজকার ব্যবহারে এই ফোনে কোন সমস্যা হয়নি আমাদের। তবে তুলনামূলক বড় এই ফোনটি এক হাতে ব্যবহার করা বেশ কষ্টকর।  ফোনের AMOLED  ডিসপ্লে যথেষ্ট উজ্জ্বল।  দিনের আলোতে এই ফোন ব্যবহারের সময় কোন সমস্যা হয়নি আমাদের। 4GB RAM  থাকলেও এই ফোন কখনও স্লো হয়ে যায়নি।

তবে ডিসপ্লের নিচের ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর সাধারণ ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর এর তুলনায় স্লো। এখনও পর্যন্ত যত ফোনে ডিসপ্লের নিচে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর ব্যবহার হয়েছে সেই সব ফোনেই  এই সমস্যা দেখা গিয়েছে। ডিসপ্লের উপরে নির্দিষ্ট জায়গায় এক সেকেন্ড আঙুল রাখার পরেই আনলক হবে Oppo K1।

তুলনামূলক দ্রুত কাজ করেছে এই ফোনের ফেস আনলক ফিচার।  কোম্পানির অন্যান্য ফোনের মতোই সঠিকভাবে কাজ করে Oppo K1 এর ফেস আনলক।

রিভিউ করার সময় Antutu  বেঞ্চমার্কে 1,28,852 স্কোর করেছে Oppo K1। এই ফোনে PUBG Mobile ও Asphalt 9: Legends এর মত ভারী গ্রাফিক্সের গেম খেলতে কোন সমস্যা হয়নি।
 

আরও পড়ুন: এবার ভারতে আসছে Samsung Galaxy M30, লঞ্চের আগেই দেখে নিন স্পেসিফিকেশন

Oppo K1 ports ndtv Oppo K1oOppo K1 ফোনের নীচে থাকছে স্পিকার গ্রিল, মাইক্রো ইউএসবি পোর্ট আর 3.5 মিমি হেডফোন জ্যাক

 

ছবি তোলার জন্য Oppo K1 ফোনে থাকছে একটি 16 মেগাপিক্সেল + 2 মেগাপিক্সেলের ডুয়াল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ। সাথেক থাকছে LED ফ্ল্যাশ। সেলফি তোলার জন্য ফোনের সামনে থাকছে একটি  25 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

এই ফোনের সেলফি ক্যামেরা রয়েছে  আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্সের বিউটিফিকেশন মোড। বিভিন্ন লেভেলে এই বিউটিফিকেশন মোড ব্যবহার করা যাবে।

বিউটিফিকেশন মোড এর মাধ্যমে মুখের চামড়া  মসৃণ করে দেওয়া হয়।  এই ধরনের সেলফি পছন্দ করলে Oppo K1 ফোনের সেলফি ক্যামেরা এ তোলা ছবি আপনার ভালো লাগবে। এছাড়াও সেলফিতে ব্যাকগ্রাউন্ড ব্লার করার ফিচার থাকছে। কম আলোতেও দারুণ সেলফি তোলা গিয়েছে এই ফোনের ক্যামেরা দিয়ে।

ফোনের পিছনে রয়েছে একটি 16 মেগাপিক্সেল প্রাইমারি সেন্সার। f/1.7 অ্যাপারচার এর কারণে কম আলোতে ভালো ছবি তুলতে পারে Oppo K1 ফোনের রিয়ার ক্যামেরা। এই দামে অন্যান্য ফোনের ক্যামেরায় কম আলোতে তোলা ছবিতে অনেক নয়েজ দেখা গেলেও Oppo K1 ক্যামেরায় তোলা ছবিতে তুলনামুলক কম নয়েজ চোখে পড়েছে।

 

আরও পড়ুন: Xiaomi, Realme অথবা Asus কে টেক্কা দিতে পারবে Samsung Galaxy M20? পড়ুন রিভিউ

বিউটিফিকেশান ছাড়া তোলা সেলফি বেশি ভালো লাগে

 

বিউটিফিকেশান মোড ত্বক অত্যাধিক মসৃণ করে দেয়

 

দিনের আলোতেও Oppo K1 ফোনের ক্যামেরায় দারুন ছবি ওঠে। এক্সপোজার ব্যালেন্স করতে দারুণ কাজে লাগে এই ফোনের HDR মোড। এছাড়াও Oppo K1 ফোনের রিয়ার ক্যামেরায় তোলা ম্যাক্রো ছবিতে দারুন ডিটেল পাওয়া গিয়েছে।

4K ভিডিও তুলতে পারে Oppo K1 ফোনের রিয়ার ক্যামেরা। তবে 4K রেসোলিউশন এ তোলা ভিডিওতে বেশি স্যাচুরেশান দেখা গিয়েছে। থাকছে না কোন স্টেবিলাইজেশন।  তবে এই ফোনের রিয়ার ক্যামেরায় তোলা 1080p ভিডিওতে তুলনামুলক ভালো রেজাল্ট পাওয়া গিয়েছে।

আরও পড়ুন: Xiaomi কে টেক্কা দিতে পারবে Samsung Galaxy M10? পড়ুন রিভিউ

Oppo K1 ফোনে তোলা ছবি ফুল সাইজে দেখতে ছবির উপরে ক্লিক করুন

 

এই ফোনে থাকছে একটি 3,600mAh ব্যাটারি। আমাদের HD ভিডিও লুপ টেস্টে 12 ঘন্টা 36 মিনিট চলেছে এই ডিভাইস। তবে এই ফোনে কোম্পানির সুপারফাস্ট VOOC চার্জিং এর সুবিধা পাওয়া যাবে না।  বাক্সের সাথে থাকছে একটি 10W  চার্জার।  এই চার্জারে Oppo K1 সম্পূর্ণ চার্জ হতে আড়াই ঘন্টা সময় লাগবে।

 

আরও পড়ুন: এই Samsung ফোনে থাকবে পপ-আপ সেলফি ক্যামেরা

 

মতামত

মাত্র 16,990 টাকায় Oppo K1 ফোনে থাকছে ডিসপ্লের নিচের ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর।  সাথে থাকছে AMOLED ডিসপ্লে। যা এই দামে অন্য কোন ফোনে পাওয়া যায় না। Oppo K1 ফোনের ভিতরে রয়েছে একটি Snapdragon 660 চিপসেট।  Realme 2 Pro আর Vivo V9 Pro ফোনে একই চিপসেট ব্যবহার হয়েছে।

তবে Oppo K1 ফোনের বিল্ড কোয়ালিটি তে খামতি রয়েছে।  এই ফোনে থাকছে না কোন USB Type-C পোর্ট।  কম আলোতে দারুন ছবি তোলে এই ফোনের ক্যামেরা।  তবে কোম্পানির ColorOS  স্কিন থেকে অনবরত বিরক্তিকর স্প্যাম আসতে থাকে।

তবে মোটের ওপর এই ফোনে দারুণ পারফর্মেন্স এর সাথেই  একটি দারুণ ডিসপ্লে,  ভালো সেলফি ক্যামেরা,  ভালো ব্যাটারি লাইফ আর ডিসপ্লের নিচে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর পাওয়া যাবে।  যা এই দামের যে কোন ফোনের থেকে Oppo K1 কে এগিয়ে রাখবে।

কমেন্ট

প্রযুক্তির সাম্প্রতিক খবর আর রিভিউস জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube.

পড়ুন: English
 
 

বিজ্ঞাপন

 
© Copyright Red Pixels Ventures Limited 2019. All rights reserved.