মুক্তি পেল প্রভাস-শ্রদ্ধার সাহু, ভারতের সবথেকে ব্যায়বহুল সিনেমা

ফেসবুকে শেয়ার করুন টুইট শেয়ার Snapchat রেডিট কমেন্ট
মুক্তি পেল প্রভাস-শ্রদ্ধার সাহু, ভারতের সবথেকে ব্যায়বহুল সিনেমা

Photo Credit: UV Creations/T-Series

Saaho ছবির মূল ভূমিকায় রয়েছেন প্রভাস (Prabhas) এবং শ্রদ্ধা কাপুর (Shraddha Kapoor)

হাইলাইট
  • 30 অগাস্ট মুক্তি পেল Saaho
  • এই সিনেমার মুখ্য চরিত্রে রয়েছেন প্রভাস ও শ্রদ্ধা কাপুর
  • চারটি ভাষায় মুক্তি পেয়েছে এই সিনেমা

শুক্রবার মুক্তি পাচ্ছে সর্বকালের সবচেয়ে ব্যয়বহুল হিন্দি এবং তেলেগু (most expensive Hindi and Telugu language film) ভাষার চলচ্চিত্র! ৩৫০ কোটি টাকার বাজেটে উত্পাদিত Saaho হিন্দি, তামিল, তেলেগু এবং মালায়ালাম ভাষায় মুক্তি পেতে চলেছে। মূল ভূমিকায় রয়েছেন প্রভাস (Prabhas) এবং শ্রদ্ধা কাপুর (Shraddha Kapoor)। গ্লোব-ট্রটিং অ্যাকশন থ্রিলার সাহু মূলত অশোক (প্রভাস) আর এজেন্ট অমৃতা নায়ারের (শ্রদ্ধা) সঙ্গে জুটি বেঁধে হাই-প্রোফাইল ডাকাতির অপরাধীদের খুঁজে বের করার গল্প। এই সপ্তাহের শুরু থেকেই ভারতে সাহু'র টিকিট পাওয়া যাচ্ছিল। আপনি কোথায় থাকেন, আপনার ভাষার পছন্দ এবং আপনার যে সিনেমাহল বেছে নিয়েছেন তার উপর নির্ভর করে আপনি IMAX 2D তে বা plain ol' 2D তে নতুন এই সিনেমা ধরতে পারবেন। সাহু ভারতে  U/A শংসাপত্র পেয়েছে; তার মানে ১২ বছরের কম শিশুরাও এই সিনেমা দেখতে পারে। ২ ঘন্টা ৫১ মিনিটের এই সিনেমা মানুষের কতখানি ভালো লাগছে সেই দিকেই তাকিয়ে নির্মাতারা।

পরিচালক সুজিথ এবং তাঁর এডিটর এ. শ্রীকর প্রসাদ চলচ্চিত্রের এতখানি লম্বা সময় নিয়ে অবশ্য ভাবছেন না। সাহুর চিত্রগ্রহণ হয়েছে হায়দরাবাদ ও মুম্বইতে, সংযুক্ত আরব আমিশাহির আবু ধাবি ও দুবাইয়ে, টায়রোল অঞ্চল, ইনসব্রুক, স্যালডেন, অস্ট্রিয়াতে সালজবুর্গ, কাহটাই এবং সিফেল্ড এবং রোমানিয়ার কিছু অংশে। সংযুক্ত আরব আমিরশাহির কাল্পনিক ওয়াজি সিটিতেও হয়েছে শ্যুটিং। প্রভাস ও শ্রদ্ধা কাপুর ছাড়াও সাহুতে অভিনয় করেছেন নীল নীতিন মুকেশ, জ্যাকি শ্রফ, মন্দিরা বেদী, মহেশ মাঞ্জরেকার, ভেনেলা কিশোর, মুরলি শর্মা, অরুণ বিজয়, এভলিন শর্মা, চঙ্কি পান্ডে, টিনু আনন্দ। জ্যাকলিন ফার্নান্দেজকে একটি বিশেষ গান ‘ব্যাড বয়'-এ দেখা যাবে।

‘সাইকো সাইয়া', ‘এন্নি সোনি', ‘বেবি ওন্ট ইউ টেল মি'র পাশাপাশি ‘ব্যাড বয়' সাহু'র চারটি পরিচিত গানের মধ্যে একটি। তনিশক বাগচী (বদরিনাথ কি দুলহানিয়া), গুরু রন্ধাওয়া (অর্জুন পাতিয়ালা), বাদশাহ (খন্দনি শফাখানা), এবং শঙ্কর–এহসান–লয় (কাল হো না হো) এই সিনেমার গানের রচয়িতা। হিন্দি গান লিখেছেন তনিশক, রন্ধাওয়া, বাদশাহ এবং মনোজ যাদব, বিনায়ক শশীকুমার (গুপ্পি) মালায়ালাম ভাষায়, মাধন কার্কি (বাহুবলী: দ্য বিগিনিং) তামিল ভাষায়, এবং শ্রীজো (সহসাম স্বাসাগা সাগিপো) এবং কৃষ্ণ কণ্ঠ (কল্কি) তেলেগু ভাষায় গানের কথা লিখেছেন।

এই চলচ্চিত্রের প্রযোজক হলেন ভামসি কৃষ্ণ রেড্ডি, প্রমোদ উপ্পালাপতি, এবং ভূষণ কুমার। সাহু ইউভি ক্রিয়েশনস এবং টি-সিরিজের একটি প্রযোজনা। সিনেমা হলে গিয়ে এই সিনেমা দেখার সময় না পেলে অবশ্য স্ট্রিমিংয়ে এই সিনেমা দেখতে কয়েক মাস অপেক্ষা করতে হবে। ভারতীয় চলচ্চিত্রগুলির সাধারণত আট সপ্তাহের থিয়েট্রিক্যাল উইন্ডো থাকে, নভেম্বরের আগে আমাজন প্রাইম ভিডিও বা নেটফ্লিক্সে পাবেন না এই সিনেমা।

কমেন্ট

প্রযুক্তির সাম্প্রতিক খবর আর রিভিউস জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube.

পড়ুন: English
 
 

বিজ্ঞাপন

 
© Copyright Red Pixels Ventures Limited 2020. All rights reserved.