অতিরিক্ত স্মার্টফোন ব্যবহারে বাড়তে পারে হৃদরোগের সম্ভাবনা, জানাচ্ছে গবেষনা

ফেসবুকে শেয়ার করুন টুইট শেয়ার রেডিট কমেন্ট
অতিরিক্ত স্মার্টফোন ব্যবহারে বাড়তে পারে হৃদরোগের সম্ভাবনা, জানাচ্ছে গবেষনা

আজকাল স্মার্টফোন প্রায় সকলের জীবনের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ। বিশেষ করে স্মার্টফোন ছাড়া জীবনকে ভারতেই পারে না তরুন প্রজন্ম। অতিরিক্ত স্মার্টফোনের ব্যবহারে শারীরিক কার্যকলাপ কমে যাচ্ছে। সম্প্রপ্তি এক গবেষণায় এই কথা জানা গিয়েছে।

এই গবেষণায় বিশ্ববিদ্যালয়ের যে সব ছাত্র ছাত্রী দিনে পাঁচ ঘন্টা বা তার বেশি সময় স্মার্টফোন ব্যবহার করেছেন তাদের মধ্যে 43 শতাংশের মোটা হয়ে যয়ার প্রবণতা তৈরী হয়েছে। এর ফলে হৃদপিন্ডে রোগের সম্ভাবনা বাড়ছে,

“সাধারন মানুষের এই বিষয়টি সম্পর্কে অবগত হওয়া প্রয়োজন। নতুন এই প্রযুক্তি নিঃসন্দেহে আমাদের জীবন অনেক সহজ করে দিয়েছে। তবে আরও স্বাস্থ্যকর জীবন বাঁচার জন্য মোবাইল ব্যবহার হওয়া উচিত” দক্ষিণ আমেরিকার প্রকাশিত এক গবেষক মিরারি ম্যান্টিলা-মরন এই কথা জানিয়েছেন।

“স্মার্টফোনের সামনে অতিরিক্ত সময় ব্যয় করলে শারীরিক কার্যকলাপের সময় কমে যায়। এর ফলে অল্প বয়সে মৃত্যু ঘটতে পারে। এছাড়াও ডায়াবেটিস ও হৃদরোগের সম্ভাবনা বাড়ে। দেখা যেতে পারে বিভিন্ন  ধরনের ক্যান্সার।” বলেন মিরারি ম্যান্টিলা-মরন।

1060 জন ছাত্র ছাত্রীর উপরে এই গবেষনা চালানো হয়েছে। সিমন বলিভার বিশ্ববিদ্যালয়ে 2018 সালের জুন মাস থেকে ডিসেম্বর মাসে ছাত্র ছাত্রীদের উপরে এই গবেষনা চালানো হয়েছিল।

এর মধ্যে 700 জন মহিলা আর 360 জন পুরুষের মধ্যে এই গবেষনা চালানো হয়েছে। মেয়েদের গড় বয়স ছিল 19 বছর আর ছেলেদের গড় বয়স ছিল 20 বছর। এর মধ্যে 36.1 শতাংশ ছেলের মোয়াট হওয়ার সম্ভাবনা দেখা গিয়েছে আরে 42.6 শতাংশ ছেলের মধ্যে অতিরিক্ত মোটা হওয়ার সম্ভাবনা দেখা গিয়েছে। মেয়েদের মধ্যে 63.9 শতাংশ মোটা ও 57.4 শতাংশ অতিরিক্ত মোটা হওয়ার সম্ভাবনা দেখিয়েছেন।

কমেন্ট

প্রযুক্তির সাম্প্রতিক খবর আর রিভিউস জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube.

পড়ুন: English
 
 

বিজ্ঞাপন

 
© Copyright Red Pixels Ventures Limited 2019. All rights reserved.